শুক্রবার, ০৭ অগাস্ট ২০২০, ০২:৫৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
চট্টগ্রা‌মের প্রধান ৫ প‌ত্রিকা অ‌নি‌র্দিষ্টকা‌লের জন্য বন্ধ শতভাগ উজাড় করে দিয়ে মানুষের সেবায় নিয়োজিত হোনঃ স্বাস্থ্যকর্মীদের রেজাউল করিম চৌধুরী ঈদ বোনাসের দাবিতে আজাদী সম্পাদকের বাসা ঘেরাও সিইউজে’র পশুর হাটের নিকটবর্তী শাখায় রাত ৮ টা পর্যন্ত ব্যাংক লেনদেন আওয়ামী লীগের দলীয় তহবিলের পরিমাণ ৫০ কোটি টাকা ইপিজেড থানার কথিত ক্যাশিয়ার সুলতান ও জাহাঙ্গীরের বেপরোয়া চাঁদাবাজি সরকারের ব্যর্থতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে : মির্জা ফখরুল স্বাস্থ্যের ডিজির কাছে অভিযোগ করলেন শাজাহান খানের মেয়ে বিএমএসএফ-বন্দরজোন কমিটির প্রথম কার্য্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয় উত্তরাঞ্চলে পানি বাড়ছে,আর কমছে সিলেটে

ঘূর্ণিঝড় আম্পান বাগেরহাটে আশ্রয় কেন্দ্রে দেড় লাখ মানুষ, শুরু হয়েছে ঝড়ো বাতাস

আবু হানিফ, বাগেরহাট অফিস::
  • প্রকাশের সময়: বুধবার, ২০ মে, ২০২০

বাগেরহাটে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে বুধবার সকাল থেকেই থেমে বৃষ্টিপাতের তীব্র বাতাস বইতে শুরু করেছে। সেই সাথে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত ঘোষণায় পর জেলার উপকূলীয় এলাকার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। উপকূলীয় এলাকার সাধারন মানুষ গবাদিপশুসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে উঠেছেন। বুধবার দুপুর ১টা পর্যন্ত বাগেরহাটের ৯৭৭টি আশ্রয় কেন্দ্রে নারী-শিশু ও বৃদ্ধসহ দেড় লাখ মানুষ ও ২০ হাজার গবাদিপশু আশ্রয় নিয়েছে বলে বাগেরহাট জেলা প্রশাসন সূত্রে জানাগেছে। বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো: মামুনুর রশীদ বলেন, সময়ের সাথে সাথে বাগেরহাটে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাব পরতে শুরু করেছে। সকাল থেকে বৃষ্টির সাথে বাতাসের তীব্রতাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। সাধারন মানুষ তাদের গবাদিপশু ও প্রয়োজনীয় মালামালসহ আশ্রয় কেন্দ্রে গুলোতে আসচ্ছে।

ইতি মধ্যেই এক লক্ষ ৫০ হাজার মানুষ ও ২০ হাজার গবাদিপশু আশ্রয় কেন্দ্রে উঠেছে। সময়ের সাথে সাথে আশ্রয় কেন্দ্রে গুলোতে মানুষের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়া করোনা পরিস্থিতির কারনে আমরা আশ্রয় কেন্দ্রে গুলো সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে কাজ করছি। সেজন্য ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্রেগুলোর পাশাপাশি জেলা সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাকা ভবনগুলো আশ্রয় কেন্দ্রে হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এসব আশ্রয় কেন্দ্রে ৪ লাখ ৮৬ হাজার ২৭৭ জন মানুষ ও প্রায় ৮৫ হাজার গবাদি পশু আশ্রয় নিতে পারবে। কেন্দ্রে গুলোতে আশ্রয় নেয়া জনসাধারনের মাঝে মাক্স, গ্লোভস ও হ্যান্ডস্যানিটাইজার বিতারন করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় ১৩ মে.টন চাল নগত ৩ লাখ টাকা, শিশু খাদ্যের জন্য ২ লাখ. গো খাদ্যের জন্য ২ লাখ টাকা ও ২ হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার ৮৪টি মেডিকেল টিম ও ৭টি ফায়ার সার্ভিস টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জেলায় রেড ক্রিসেন্ট, স্কাউটস, সিপিপির মোট ১১ হাজার ৭০৮ জন স্বেচ্ছাসেক প্রস্তুত রাখা হয়েছে। প্রস্তুত রাখা হয়েছে ৮৫ টি মেডিকেল টিম। খোলা হয়েছে ১০টি কন্ট্রোল রুম।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

দেশের নিউজ’র ই-পেপার::

বিজ্ঞাপন::

বিজ্ঞাপন::

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
Shahriar@01717698939