শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪৫ অপরাহ্ন

রমজানে ত্বকের বিশেষ যত্ন

দেশের নিউজ ডেস্ক::
  • প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ১৫ মে, ২০২০

গরমে সারাদিন পানাহার থেকে বিরত থাকায় এই রমজানে অনেকের ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই প্রয়োজন ত্বকের বিশেষ যত্ন। এ নিয়ে প্রখ্যাত চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. ফাতিমা ওয়াহিদা জানান। রমজানে যেহেতু আমরা সেহরির পর থেকে ইফতার পর্যন্ত কোন ধরণের খাবার গ্রহণ করি না, এক্ষেত্রে আমাদের পানি শূন্যতা অনেক বড় ফ্যাক্টর হিসেবে কাজ করে। যা আমাদের ত্বকে পানি শূন্যতার প্রভাব ফেলে।

এ মাসে যেহেতু আমরা দু’বেলা খাবার গ্রহণ করার সুযোগ পাই, তাই সেটাকে কাজে লাগাতে হবে। সেহরি ও ইফতারে অন্যান্য খাবারের সঙ্গে পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি খেতে হবে। পাশাপাশি, ফলের রস, ডাব খাওয়া যেতে পারে।

প্রথমত আমাদের পানির চাহিদা পূরণ করতে হবে। সেটা ফলের রস, ডাব বা সাধারণ পানি দিয়েও হতে পারে। পাশাপাশি, ভাজা-পোড়া খাবার গ্রহণ থেকে বিরত থাকলে ভালো। শুধু রমজান নয়, সব মময় আমাদের এগুলো করতে হবে। বিশেষ করে রমজানে ত্বকের সুরক্ষায় এগুলো অবশ্য করণীয়। সিদ্ধ করা খাবার, ভিটামিন ‘এ’ ‘ই’ ধরণের খাবার যেমন গাজর, টমেটো, ব্রকলি খাওয়া যেতে পারে।

বিশেষজ্ঞ জানান, প্রচণ্ড গরমের ফলে শরীরে অনেক ধরণের সমস্যা হতে পারে। অতিরিক্ত ঘামের ফলে, অনেক সময় ঘাম না বের হতে পেরে সেখানে থেকে যায়। এর ফলে ঘামাছি, সামার বয়েল বা ফোঁড়ার মত বিভিন্ন চর্মরোগ হতে পারে। এক্ষেত্রে, বিভিন্ন পাউডার ব্যবহার করা হয়ে থাকে। শরীর শুষ্ক রাখতে ওলেন্টিয়ন কম্পোজিশন, কিউটি কুরা নামে বিভিন্ন পাউডার আমরা ব্যবহার করতে পারি।

গরমকালে সব সময় সুতি জামা-কাপড় পরিধান করা উচিৎ। এসময় খুব প্রয়োজন ছাড়া স্কিনের পোজগুলোকে ব্লক করার দরকার নেই। স্কিনকে হেলদি রাখার জন্য যতটুকু না হলেই নয়, ততোটুকু করা যেতে পারে। এসময় অতিরিক্ত মেকাপে যাদের মুখে ব্রণসহ শরীরের বিভিন্ন সমস্যা রয়েছে, সেগুলো আরও বেড়ে যায়। তাই, চেষ্টা করতে হবে কম ব্যবহার করতে।

এসময় নারীদের বিভিন্ন সমস্যা হয়ে থাকে। পুরুষদের পাশাপাশি নারীদেরও ঘামাছি হয়ে থাকে। বিশেষ করে কর্মজীবী নারীদের সমস্যা আরও বেশি হয়ে থাকে। এসময় নারীরা সবচেয়ে বেশি ভোগেন মেছতা সমস্যায়। কেননা, গরমের সময় এর প্রভাব আরও বেশি হয়ে থাকে। অনেকে এটি প্রতিকারে বিভিন্ন ক্রিম ব্যবহার করে।

কিন্তু এ ধরণের ক্রিম ব্যবহারে সাময়িকভাবে সুন্দর লাগলেও, এটি আসলে ক্ষতিকার। এটি একধরণের অপচিকিৎসা। এর প্রতিকারে আমাদের দেশে যে তামপাত্রা তাতে কোন নারীর মেছতা থাকুক বা না থাকুক, ত্বকের যত্নে অবশ্যই সান ব্লাক ব্যবহার করা উচিৎ। এক্ষেত্রে ফিজিক্যাল ও ক্যামিক্যাল সান ব্লাক ব্যবহার করা যেতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

দেশের নিউজ’র ই-পেপার::

বিজ্ঞাপন::

বিজ্ঞাপন::

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
Shahriar@01717698939